সিডনী মঙ্গলবার, ২৮শে মে ২০২৪, ১৪ই জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১


অস্ট্রেলিয়া বাংলাদেশ প্রেস ও মিডিয়া ক্লাবের বাংলা নববর্ষ উৎযাপন


প্রকাশিত:
২২ এপ্রিল ২০২৪ ১৬:১৪

আপডেট:
২২ এপ্রিল ২০২৪ ১৮:৩৪

 

আবু তারিক: ২১ এপ্রিল (রবিবার) দুপুর থেকে সন্ধ্যে পর্যন্ত সিডনির হার্রিংটোন পার্কের অডিটোরিয়ামে উৎযাপিত হয়েছে অস্ট্রেলিয়া বাংলাদেশ প্রেস ও মিডিয়া ক্লাবের নববর্ষ ও ঈদ আড্ডা।

অনুষ্ঠানের শুরুতে সিডনির অত্যন্ত পরিচিত কণ্ঠশিল্পী অমিয়া মতিনের নেতৃত্বে ' এসো হে বৈশাখ ' গান দিয়ে দিয়ে অনুষ্ঠান শুরু করা হয়। তারপরে সভাপতি একে একে অস্ট্রেলিয়া বাংলাদেশ প্রেস ও মিডিয়া ক্লাবের সদস্যদের পরিচয় করিয়ে দেন। নতুন সদস্যদের স্বাগতম জানানো হয়। বাংলাদেশ থেকে আগত অভিনেত্রী অভিনেত্রী ও উপস্থাপিকা মিষ্টি মারিয়া অনুষ্ঠানের শুরুতে সঞ্চালনায় ছিলেন এবং পরবর্তীতে সঞ্চালনা করেন এলিজা টুম্পা।
আরো দুইজন বিশেষ অতিথি হিসেবে ছিলেন বাংলাদেশের নামকরা অভিনেতা মাজনুন মিজান ও কণ্ঠ শিল্পী মোঃ শুভ।

সভাপতি রহমতুল্লাহ সকলকে স্বাগত জানান এবং প্রেস ও মিডিয়া ক্লাবের উত্তরোত্তর সাফল্য কামনা করে কিছু সামনের দিনগুলোতে সংগঠনটি কিভাবে আরো বেগবান করা যায় সেই নিয়ে কিছু দিক নিৰ্দেশনামূলক কথা বলেন। সাধারণ সম্পাদক ,মোঃ ইকবাল ইউসুফ নববর্ষ ও ঈদ পুনর্মিলনী অনুষ্ঠানের আয়োজনের জন্য কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করেন সদস্যদের প্রত্যেককে।

জনকণ্ঠের অস্ট্রেলিয়া প্রতিনিধি ও সহ সভাপতি কাজী সুলতানা শিমি বলেন, বিদেশের মাটিতে ভলান্টিয়ার হিসেবে আমরা লেখালেখি করে আসছি , একটি সংগঠনের ছায়াতলে থেকে জাতীয় কিছু অনুষ্ঠান করলে সংগঠনের সদস্যদের মধ্যে একটা সেতুবন্ধন আরো জোরদার হয়, এতে কাজের গতি আরো বেড়ে যায়।

উপদেষ্টা আবু রেজা আরেফিন বলেন, এতো সুন্দর আয়োজন করে পহেলা বৈশাখ উৎযাপন ও ঈদ পুনর্মিলনী আমাদের মুখ্য উদ্দেশ্য না, আমাদের মূল কাজ হলো একতাবদ্ধ হয়ে কাজ করা এবং সামনের দিনগুলোতে আমরা মিডিয়ার বিভিন্ন অঙ্গনে নিজেদের দৃঢ় অবস্থান বজায়ে রাখার জন্য তথ্য শেয়ার এবং তথ্য প্রচারের ক্ষেত্রে যেনো আরো ভূমিকা রাখতে পারি সেদিকে আরো মনোযোগ দিতে হবে।

পহেলা বৈশাখের আয়োজনে মধ্যাহ্ন ভোজে ছিল ১০ রকমের দেশীয় ভর্তা, ইলিশ, পান্তা এবং অন্যান্য খাবার। অনুষ্ঠানের দ্বিতীয় পর্বে সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠানে ছিল লোকশিল্পী নামিদ ও পলির অনবদ্য গান। সাথে সাহায্য করেন মামুন।

এছাড়াও অন্যান্য শিল্পীরাও মনমুগ্ধকর গান পরিবেশনা করেন। বিকেলের পর্বে ছিল ফুসকা, চটপটি, কেক, মিষ্টান্ন ও চা। এছাড়াও উপস্থিত পুরুষ ও নারী সদস্যদের মধ্যে খেলার আয়োজন ও পুরস্কার বিতরণী অনুষ্ঠানের আয়োজন ছিল।

অনুষ্ঠানের সার্বিক পরিকল্পনায় ছিলেন এলিজা টুম্পা এবং কাজী সুলতানা শিমি। শব্দ নিয়ন্ত্রণে ছিলেন মাহফুজুর রহমান। খাবার পরিবেশন করেন স্মোকি বাইট।


বিষয়:


আপনার মূল্যবান মতামত দিন:


Developed with by
Top