সিডনী মঙ্গলবার, ১৩ই এপ্রিল ২০২১, ৩০শে চৈত্র ১৪২৭


চাপের মুখে অস্ট্রেলিয়ার মন্ত্রিসভায় রদবদল


প্রকাশিত:
৩০ মার্চ ২০২১ ১৪:০৪

আপডেট:
৩০ মার্চ ২০২১ ১৪:০৪

 

প্রভাত ফেরী: ধর্ষণের অভিযোগ ওঠা মন্ত্রিসভার এক সদস্যকে অস্ট্রেলিয়ার প্রধানমন্ত্রী স্কট মরিসন প্রধান আইনি কর্মকর্তার পদ থেকে সরিয়ে দিয়েছেন।

রদবদলের ফলে ক্রিশ্চিয়ান পোর্টার অ্যাটর্নি জেনারেলের পদে না থাকলেও অন্য দায়িত্বে মন্ত্রিসভাতেই থাকছেন বলে বিবিসির এক প্রতিবেদনে জানানো হয়েছে।

সোমবার মরিসন মন্ত্রিসভায় হওয়া রদবদলে বেশ কয়েকজন নারী আইনপ্রণেতার পদোন্নতি হলেও পোর্টারের মতোই পদাবনতি হয়েছে প্রতিরক্ষা মন্ত্রী লিন্ডা রেনল্ডসের। প্রভাবশালী এ নারী রাজনীতিককে সরকারি পরিষেবা মন্ত্রণালয়ের দায়িত্ব দিয়ে মন্ত্রিসভাতেই রাখা হয়েছে।

১৯৮৮ সালে ১৭ বছর বয়সী পোর্টার এক কিশোরীকে ধর্ষণ করেছিলেন বলে অভিযোগ পাওয়া গেছে। লিবারেল পার্টির এ রাজনীতিক তার বিরুদ্ধে ওঠা এ অভিযোগ অস্বীকার করে আসছেন। 

সাম্প্রতিক সপ্তাহগুলোতে অস্ট্রেলিয়ার প্রধানমন্ত্রীকে তার সহকর্মী ও প্রশাসনের কর্মকর্তাদের বিরুদ্ধে ওঠা একের পর এক ধর্ষণ, অসদাচরণ ও পুরুষতান্ত্রিকতা সংক্রান্ত অভিযোগের চাপ মোকাবেলা করতে হয়েছে। এসব অভিযোগ অস্ট্রেলিয়ার রাজনীতিকেও বড় ধরনের ঝাঁকুনি দিয়েছে।

মন্ত্রিসভায় রদবদলের পর পোর্টার বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিষয়ক মন্ত্রণালয়ের দায়িত্ব পেয়েছেন; অ্যাটর্নি জেনারেল ও শিল্প সম্পর্কিত মন্ত্রী পদে তার স্থলাভিষিক্ত হয়েছেন মিকালিয়া ক্যাশ।

 



আপনার মূল্যবান মতামত দিন:


Top