সিডনী বুধবার, ১৮ই মে ২০২২, ৪ঠা জ্যৈষ্ঠ ১৪২৯


অস্ট্রেলিয়া জুড়ে ৭৪ জনের মৃত্যু


প্রকাশিত:
১৮ জানুয়ারী ২০২২ ১১:৩৪

আপডেট:
১৮ মে ২০২২ ১৫:৪০

 

প্রভাত ফেরী: নিউ সাউথ ওয়েলস, ভিক্টোরিয়া এবং কুইন্সল্যান্ডে কোভিড-১৯-এ আক্রান্ত ৭৪ জনের মৃত্যুর খবর পাওয়া গেছে, যা এই মহামারীতে অস্ট্রেলিয়ার সর্বোচ্চ দৈনিক মৃত্যু সংখ্যা।

ওমিক্রনের প্রভাবে ভিক্টোরিয়ার স্বাস্থ্য পরিষেবা চাপে পড়েছে, সমস্ত হাসপাতালে 'কোড ব্রাউন' জরুরি অবস্থা ঘোষণা করেছে৷

ভিক্টোরিয়ান ডেপুটি প্রিমিয়ার জেমস মেরলিনো বলেছেন, "আমাদের স্বাস্থ্য ব্যবস্থা এমন একটি পর্যায়ে পৌঁছেছে যেখানে আমরা প্রচন্ড স্বাস্থ্যকর্মী সংকটের মধ্যে কাজ করছি।"

'কোড ব্রাউন' জরুরি আদেশটি ছয়টি রিজিওনাল হাসপাতালেও প্রযোজ্য হবে, এর অর্থ হল হাসপাতালের কর্মীদের ছুটি বাতিল করা যেতে পারে এবং আপাতত প্রয়োজনীয় নয় এমন সার্ভিস স্থগিত করা যেতে পারে।

নিউ সাউথ ওয়েলস ২৯,৮৩০ টি নতুন কেস রিপোর্ট করেছে। বেশিরভাগ পিসিআর পরীক্ষার মাধ্যমে রেকর্ড করা হয়েছে। হাসপাতালে রয়েছে ২,৮৫০ জন, যার মধ্যে ২০৯ জন আইসিইউতে।

সিডনি মর্নিং হেরাল্ড রিপোর্ট করেছে যে স্টেটের ১.২ মিলিয়ন শিক্ষার্থীকে স্কুলে ফিরে যাওয়ার জন্য একটি প্রস্তাবের অধীনে সপ্তাহে দুবার রেপিড এন্টিজেন টেস্ট (RATs) নিতে হবে।

টাসম্যানিয়াতে আজ মধ্যরাত থেকে, সম্পূর্ণ টিকাপ্রাপ্ত ভ্রমণকারীদের ভ্রমণের আগে তাদের ভ্রমণ নিবন্ধন করতে হবে না বা কোভিড-১৯ পরীক্ষা করতে হবে না। তবে যাদের ভ্যাকসিন দেয়া নেই তাদের জন্য নিয়ম অপরিবর্তিত থাকবে।

কুইন্সল্যান্ডে দুই সপ্তাহ দেরিতে নতুন স্কুল বছর শুরু হবে, কারণ স্বাস্থ্য কর্তৃপক্ষ বর্তমান পরিস্থিতির কারণে এটি বিলম্বিত করার সিদ্ধান্ত নিয়েছে।

কুইন্সল্যান্ড ১৬ জন মৃত্যুর খবর দিয়েছে, স্বাস্থ্যমন্ত্রী ইভেট ডি'আথ স্বাস্থ্য সুবিধা নিশ্চিত করতে এবং ভাইরাসের সম্ভাব্য বিস্তার কমাতে হাসপাতালে দর্শনার্থীদের জন্য নিয়ম পরিবর্তনের ঘোষণা দিয়েছেন।

ইউরোপীয় ইউনিয়ন অস্ট্রেলিয়া, আর্জেন্টিনা এবং কানাডা থেকে দৈনিক কেস সংখ্যা বেড়ে যাবার কারণে টিকাবিহীন আগমনকারীদের জন্য কোভিড-১৯ ভ্রমণের নিয়ম কঠোর করতে যাচ্ছে।

 



আপনার মূল্যবান মতামত দিন:


Top