সিডনী শুক্রবার, ২২শে অক্টোবর ২০২১, ৭ই কার্তিক ১৪২৮


পেন্সিল অষ্ট্রেলিয়া'র ৫ম বর্ষপূর্তি উদযাপন


প্রকাশিত:
১৫ সেপ্টেম্বর ২০২১ ১৫:১৯

আপডেট:
২২ অক্টোবর ২০২১ ০৬:০৯

 

গত দেড় বছর জুড়ে যেন অন্যরকম এক পৃথিবীতে কাটছে আমাদের মানবজীবন।পরমাণু সমান জীবাণুর মহামারী গ্রাস করে আছে পুরো বিশ্ব। অনিশ্চয়তা আর আতংকের মাঝে থমকে গেছে আমাদের নিত্যদিনের জীবনযাপন। ঘরবন্দী সময়, সামাজিক দূরত্ব, লকডাউন আর আইসোলেশন হয়ে উঠেছে আমাদের প্রতিদিনের সঙ্গী। শত বৈরীতার মাঝেও সৃজনশীল মানুষের নান্দনিক আর সৃজনশীল কাজ কিন্তু থেমে থাকতে পারে না।আর তারই প্রতিফলন আমরা প্রতিনিয়ত দেখছি অনলাইন সামাজিক মাধ্যম পেন্সিলে।

সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে নান্দনিক সৃষ্টিশীল শুদ্ধ চর্চার এক দুর্দান্ত প্ল্যাটফর্ম পেন্সিল। ২০১৬ সালে যাত্রা শুরুর পর থেকে অস্ট্রেলিয়া প্রবাসী বাঙ্গালীদের বাংলাভাষা, বাংলা সংস্কৃতি তথা বাঙ্গালীয়ানা চর্চার এক অবিসংবাদিত মাধ্যম হয়ে উঠেছে পেন্সিল অস্ট্রেলিয়া। এই করোনা কালে ঘরবন্দী পরিবেশের মাঝেও পেন্সিলরদের বিভিন্ন সৃজনশীল কাজ নির্মল বিনোদন ছড়িয়েছে বাংলা ভাষাভাষীদের মাঝে এবং পৌঁছে গেছে পৃথিবীর এক প্রান্ত থেকে অন্য প্রান্তে।

১২ ই সেপ্টেম্বর ২০২১ ছিল এই তুমুল জনপ্রিয় অনলাইন প্ল্যাটফর্ম পেন্সিলের ৫ম বর্ষপূর্তি।করোনার নীল ছোবলে অষ্ট্রেলিয়ার জনজীবন যখন ঘরবন্দী একঘেয়ে জীবনযাপনে বিপর্যস্ত ঠিক তখনই পেন্সিল অষ্ট্রেলিয়ার ৫ম বর্ষপূর্তি উদযাপনের মাহেন্দ্রক্ষন যেন ছড়িয়ে দিয়েছিল এক অনাবিল আনন্দের ধারা।বিশেষ করে অষ্ট্রেলিয়ায় বসবাসকারী বাঙালী সংস্কৃতিমনা পেন্সিলরদের প্রাণচাঞ্চল্য ছিল সত্যি প্রশংসীয়।

পেন্সিল অষ্ট্রেলিয়ার ৫ম বর্ষপূর্তি উপলক্ষে অষ্ট্রেলিয়া জুড়ে ছড়িয়ে থাকা পেন্সিলরদের শুভেচ্ছা বানী, গানে, ছবিতে এবং বিভিন্ন রকম সৃজনশীল কাজের পোষ্টে সারাদিনব্যাপী এর ফেসবুক পেজ ছিল সরব আর বর্নিল।তার সাথে ছিল অনলাইন ভিত্তিক মনোমুগ্ধকর সাংস্কৃতিক সন্ধ্যা। কবিতা পাঠের আসর জমে উঠেছিল প্রিয় আবৃত্তিকার জেরিন আফরীন আর নওশীন ঠাকুরের আবৃত্তিতে। সুরের মুর্ছনায় গানের ডালি সাজিয়ে দর্শকদের বিমোহিত করেছিল প্রিয় সংগীতশিল্পী রছি শেইখ আর ইলোরা খান।

১২ ই সেপ্টেম্বরের সবচেয়ে আকর্ষণীয় আয়োজন ছিল ছোট পেন্সিলরদের নিয়ে আয়োজিত যাদুর পেন্সিল পর্বটি। সাইদা মুহুরী আর ফারিনা মাহমুদের পরিকল্পনায় এবং ফারিনা মাহমুদের সন্চালনায় এই পর্বে অংশগ্রহণ করে সন্দীপন গুহ, মেহুলি বোস, নোভেলিয়া রহমান, ইশায়াত রহমান, ফারিন ফরহাদ,আরিয়া মুহূরী, সাফিনা জামান, হেমন্তিকা হেম, মাহরুস সাফির আহমেদ, আবরার গাজী,অহনা দে, শাবাজ খান, জোহাইব আইহাম মাজীদ, ঐশিক স্বপ্নীল মজুমদার,রোহান রহমান,আদিত্য চৌধুরী, আরশি চৌধুরী,ইয়ারা হক,ইপ্সিতা রুপন্তী,রেহনুমা আহমেদ,ইরিনা আফরিন চৌধুরী, ঈশাল আবেদাবুন, শাহরান ইসলাম খান এবং জিতেশী পাল।এই পর্বে ছোট্ট পেন্সিলররা গান, নাচ, আবৃত্তি, গল্পবলা, ছবি আঁকা, বাদ্যযন্ত্র, এমনকি জাদু শিল্পেও চমৎকৃত করেছে দর্শকদের।ফারিনা মাহমুদের চমৎকার উপস্হাপনায় এবং ছোট সোনামনিদের স্বতস্ফূর্ত পরিবেশনায় যেন সত্যিকারের যাদুর পেন্সিল দর্শক স্রোতাদের মন আর প্রান ছুঁয়ে দিয়েছিল।সৃজনশীল সাংস্কৃতিক ব্যক্তিত্বদের নিয়ে প্রাণবন্ত এই পুরো আয়োজনের সার্বিক পরিকল্পনা আর তত্ত্বাবধানে ছিলেন পেন্সিল অস্ট্রেলিয়ার সাকিনা আক্তার, জয় কবির, নীরা রহমান, জিয়াউল ইসলাম তমাল, অনামিকা ধর।

আমি ভীষনভাবে বিশ্বাস করি যে প্রবাসের হাজার হাজার বাঙালি আমার মতোই ছোট্ট এক খন্ড বাংলাদেশ বুকের মাঝে নিয়ে এই প্রবাসে বাস করছেন। আমাদের সবারই স্বপ্ন এই পৃথিবীর বুকে বাংলা ভাষা,সংস্কৃতি আর সৃষ্টিশীল কাজ সগৌরবে প্রতিষ্ঠিত হোক।আমরা চাই প্রবাসের নতুন প্রজন্মের মাঝে বাংলা সংস্কৃতি চর্চার যে চমৎকার ধারা দেখতে পাচ্ছি এই ধারা প্রবাহমান থাকুক পৃথিবীর এক প্রান্ত থেকে অন্য প্রান্তে আর ছড়িয়ে পড়ুক প্রজন্ম থেকে প্রজন্মতরে।
পেন্সিল এবং পেন্সিল অষ্ট্রেলিয়া প্ল্যাটফর্ম সামাজিক যোগাযোগের মাধ্যমে বাঙালীর এই স্বপ্নটুকুকে খুব যত্নের সাথে ছড়িয়ে দিচ্ছে পৃথিবীর অসংখ্য প্রান্তে। আর তাই তো পেন্সিলের জনপ্রিয়তা প্রতিনিয়ত উর্দ্ধমূখী। করোনার এই বৈরীতার মাঝেও এরকম নান্দনিক আর সৃজনশীল ৫ম বর্ষপূর্তি উদযাপন আয়োজনের জন্য পেন্সিল অষ্ট্রেলিয়া এবং সংশ্লিষ্ট সবাইকে জানাই অনেক ধন্যবাদ, শুভেচ্ছা আর অভিনন্দন।সেই সাথে কামনা করি পেন্সিল অষ্ট্রেলিয়ার এই পথচলা আরও সাফল্যমন্ডিত, নান্দনিক আর সৃজনশীল কর্মময়তায় ভরে উঠুক!

নওশীন ঠাকুর



আপনার মূল্যবান মতামত দিন:


Top