সিডনী মঙ্গলবার, ২৩শে এপ্রিল ২০২৪, ১০ই বৈশাখ ১৪৩১


সিডনিতে ওমেন্স কাউন্সিল অস্ট্রেলিয়া‘র উদ্যোগে আন্তর্জাতিক নারী দিবস পালিত


প্রকাশিত:
৯ মার্চ ২০২৪ ১৫:০৫

আপডেট:
২৩ এপ্রিল ২০২৪ ১৯:৫৭

 

আবু নাঈম আবদুল্লাহ: গত ৭ মার্চ (বৃহস্পতিবার) সন্ধ্যায় ওমেন্স কাউন্সিল অস্ট্রেলিয়া ইনক এর উদ্যোগে সিডনির একটি ফাংশন সেন্টারে আন্তর্জাতিক নারী দিবস পালিত অনুষ্ঠিত হয়। ওমেন্স কাউন্সিল অস্ট্রেলিয়া ইনক এর সভাপতি সাজেদা আক্তার সানজিদার সার্বিক তত্ত্বাবধানে এবং হেমা জোয়ার্দারের সঞ্চালনায় ছোট্ট সোনামনি শায়ান ইয়াসার জামানের কোরআন তেলাওয়াতের মাধ্যমে অনুষ্ঠান শুরু হয়।

ক্রিস ফুচার-কোলসের নেতৃত্বে সেলফ ডিফেন্স-স্টে সেফ অস্ট্রেলিয়া শো প্রদর্শনের পর অনুষ্ঠানে প্রথম প্রজন্মের ৬ জন সফল নারীকে কমিউনিটিতে তাদের অবদান ও কঠোর পরিশ্রমের জন্য সম্মাননা ক্রেস্ট প্রদান করা হয়। স্কট ফার্লো এমএলসি, ডেপুটি মেয়র রাচেল হারিকা, প্রাক্তন এমপি ওয়েন্ডি লিন্ডসে এবং লিবারেল উইমেনস কাউন্সিলের সভাপতি বেরেনিস ওয়াকারের সংক্ষিপ্ত আলোচনার পর মনোনীত সফল নারীদের ক্রেস্ট প্রদান করেন ডাঃ নাহিদ সায়মা, ডাঃ রোকেয়া ফকির কেয়া, ডাঃ নাজমুন নাহার, ডাঃ লাভলী রহমান, ডাঃ রুম্মানা আফরিন, ও তাসলিমা রহমান মুমু।

এই স্বীকৃতি সকল নারীদেরকে তাদের প্রচেষ্টা চালিয়ে যেতে অনুপ্রাণিত করবে বলে বিশেষ অতিথিরা আশাব্যক্ত করেন। গণপ্রজাতন্ত্রী বাংলাদেশের কনসোল জেনারেল মোঃ সাখাওয়াত হোসেন, ড. মার্ক কোর এমপি,বহুসংস্কৃতির মন্ত্রী, ক্যান্টারবেরি-ব্যাঙ্কটাউন কাউন্সিলের মেয়র বিলাল এহায়েকও অনুষ্ঠানে উপস্থিত থেকে তাদের মূল্যবান বক্তৃতা দেন।

অতিথিরা দ্বিতীয় প্রজন্মের আরও ৬ জন মনোনীত সফল নারীকে তাদের সাফল্য এবং কমিউনিটিতে অবদানের জন্য প্রশংসার প্রতীক হিসেবে ক্রেস্ট প্রদান করেন। ক্রেস্ট প্রাপ্তরা হলেন সারা আহমেদ, এশা লামিয়া রহমান, ডাঃ ফাবিহা সিদ্দিক, তাসনিয়া আলম হান্নান, তানজিম খান এবং নাবিলা আফ্রিদা স্রোতস্বিনী।

ডাঃ ফাবিহা সিদ্দিক, নাবিলা আফ্রিদা স্রোতস্বিনী, এবং মিঠু স্বপ্নের গান পরিবেশন করেন। উইমেন কাউন্সিল অস্ট্রেলিয়া ইনক গত কয়েক বছর ধরে নারী দিবসে এই ধরনের অনুষ্ঠানের আয়োজন করে আসছে এবং তাদের এই উদ্যোগ ও কার্যক্রমের জন্য প্রশংসা কুড়িয়েছে।

অনুষ্ঠানে আরো বক্তব্য রাখেন কাউন্সিলর মাসুদ খলিল, ডেপুটি মেয়র-ক্যাম্পবেলটাউন সিটি কাউন্সিল, রিজওয়ান চৌধুরী, প্রাক্তন এমএলসি প্রার্থী এনএসডব্লিউ পার্লামেন্ট। অনুষ্ঠানে স্থানীয় ও বিভিন্ন কমিউনিটির ব্যক্তিবর্গ, রাজনৈতিক ব্যক্তিত্ব, সরকারি কর্মকর্তা, সাংগঠনিক নেতৃবৃন্দ, ব্যবসায়ী নেতৃবৃন্দ, পেশাজীবী সহ প্রায় দুই শতাধিক অতিথি উপস্থিত ছিলেন। নৈশভোজের আয়োজন ও কেক কাটার মধ্য দিয়ে অনুষ্ঠান শেষ হয়।


বিষয়:


আপনার মূল্যবান মতামত দিন:


Developed with by
Top