সিডনী বুধবার, ২১শে অক্টোবর ২০২০, ৬ই কার্তিক ১৪২৭


আবার নক্ষত্রপতন! : শিবব্রত গুহ


প্রকাশিত:
২৮ সেপ্টেম্বর ২০২০ ১৬:২৬

আপডেট:
২১ অক্টোবর ২০২০ ০৮:২৮

ছবিঃ এসপি বালাসুব্রমণিয়ম

 

এই ২০২০ সাল কি শুধুই দুঃস্বপ্নের বছর হয়ে থাকবে আমাদের কাছে? আবার নক্ষত্রপতন ঘটলো। তবে, এবার সেটা হল চলচ্চিত্র ও সংগীত জগতে। যা খুবই দুঃখের কথা। এসপি বালাসুব্রমণিয়ম ওরফে বালু আর নেই। তিনি চলে গেছেন আমাদের ছেড়ে।
তাঁর সুরেলা জাদুতে এতদিন মুগ্ধ হয়ে ছিল আপামর ভারতবাসী। তাঁর গাওয়া গানগুলি আজো লোকের মুখে মুখে ফেরে। তাঁর গায়কী ভঙ্গি ছিল অসাধারণ। বলিউডে তাঁর অভিষেক হয়েছিল, ১৯৭৭ সালে, " মিঠি মিঠি
বাতেঁ " সিনেমাতে। গানটি ছিল, " দিল দিওয়ানা বড়া মস্তানা "। তারপরে, বেশ কিছু বছর তাঁর গান আর শোনা যায়নি বলিউডে।
তবে, বলিউডে, তিনি আবার ফিরলেন, ১৯৮১ সালে, সিনেমার নাম ছিল, "এক দুজে কে লিয়ে"। এই সিনেমাতে গান গেয়ে তিনি পেয়েছিলেন জাতীয় পুরষ্কার। তিনি সারাজীবনে, মোট ছয় বার জাতীয় পুরষ্কারে সম্মানিত হয়েছিলেন। যা সত্যিই অভাবনীয়! তিনি একদিনে, ২১টি গান রেকর্ড করেছিলেন।
২০০১ সালে, সঙ্গীতে অসামান্য অবদানের জন্য, তাঁকে, দেওয়া হয়েছিল পদ্মশ্রী। ২০১১ সালে, তাঁকে সন্মানিত করা হয় পদ্মভূষণ সন্মানে। খুব গুণী মানুষ ছিলেন তিনি। তাঁর গুণের নেই কোন শেষ।
তাঁর মৃত্যুকালীন বয়স হয়েছিল ৭৪ বছর। তাঁর মৃত্যুর সাথে সাথে চিরকালের মতো শেষ হয়ে গেল ভারতের এক সুরেলা অধ্যায়ের। তিনি আক্রান্ত হয়েছিলেন মারাত্মক করোনা ভাইরাসে। গত ৫ই আগস্ট, তিনি করোনায় আক্রান্ত হয়ে ভর্তি হয়েছিলেন হাসপাতালে। কিন্তু, গত ৪ ঠা সেপ্টেম্বর, তাঁর করোনা রিপোর্ট নেগেটিভ এসেছিল।
কিন্তু, আবার, গত ২৪শে সেপ্টেম্বর, তাঁর শারীরিক অবস্থার অবনতি হয়েছিল। তারপর, গত ২৫ শে সেপ্টেম্বর, শুক্রবারে, চেন্নাইয়ের এমজিএম হেলথকেয়ার হাসপাতালে, তিনি মারা যান। কেলাডি কানমনি, কাধালন, উল্লাসমের মতো সিনেমাতে তাঁর গাওয়া গান এখনো বিরাট জনপ্রিয়।
মানুষ হিসাবেও তিনি অত্যন্ত সজ্জন ব্যক্তি ছিলেন। তাঁর ব্যক্তিত্ব ছিল দেখবার মতো। তাঁর হাসিখুশী মুখের প্রতিচ্ছবি মনকে করে তৃপ্ত।তিনি ১৬ টি ভাষায় গেয়েছেন প্রায় ৪০ হাজার গান। যা সত্যিই প্রশংসনীয়। আরেক বিখ্যাত সুরকার এ আর রহমানের সাথে কাজ করেছেন তিনি।
তিনি একজন সুদক্ষ অভিনেতাও ছিলেন। তাঁর অভিনয় দর্শকদেরকে মুগ্ধ করতো। বাংলা গানের শ্রোতাদের মন জয় করেছিলেন তিনি। ভিসিআর - এর যুগে, " একান্ত আপন " -সিনেমাতে, আশাজীর সাথে গাওয়া তাঁর বাংলা গান " না না না কাছে এসো না " - আজো খুব জনপ্রিয়। এই গান এখনো পুজো প্যান্ডেলে মাইকে বাজতে শোনা যায়।
তিনি সঙ্গীত দুনিয়ায় কাজ করেছেন দাপটের সাথে, যা ৫০ বছরের বেশি সময় ধরে, যেটা এক বিরাট কৃতিত্বের দাবী রাখে। বলিউডে, রোজা, ম্যায়নে প্যায়ার কিয়া, হাম আপকে হ্যায় কৌন সিনেমাতে তাঁর গাওয়া সব অসাধারণ গান আমাদের হৃদয়কে আজো এক অপূর্ব স্নিগ্ধতায় ভরিয়ে রেখেছে।
তিনি চিরকাল করেছেন সঙ্গীতের সাধনা। সঙ্গীত ছিল তাঁর ধ্যান - জ্ঞান। তাঁর প্রয়াণে আজ শোকস্তব্ধ ভারতের চলচ্চিত্র ও সংগীত জগত।

চলে গেলেন বালু। এতে যে ক্ষতি হল, সেই ক্ষতি কখনো, কখনো, কখনো, পূরণ হবে না, হবে না, পূরণ।

শিবব্রত গুহ
কলকাতা

 

এই লেখকের অন্যান্য লেখা






আপনার মূল্যবান মতামত দিন:


Top