সিডনী মঙ্গলবার, ২৩শে এপ্রিল ২০২৪, ১০ই বৈশাখ ১৪৩১


ট্রেন যাবে শিলিগুড়ি থেকে নাথু লা


প্রকাশিত:
২৭ ফেব্রুয়ারি ২০২৪ ১৬:১৬

আপডেট:
২৭ ফেব্রুয়ারি ২০২৪ ১৬:২৫

 

ভারতের রেল মানচিত্রে ঢুকে পড়ছে সিকিম। শিলিগুড়ি থেকে ট্রেন যাবে নাথু লা পর্যন্ত। প্রথম পর্যায়ে শিলিগুড়ি থেকে রংপোর কাজ ৬৫ শতাংশ শেষ।


সোমবার ভার্চুয়ালি প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি সিকিমের রংপো স্টেশনের ভিত্তিপ্রস্তর স্থাপন করবেন। এ সময় তিনি ভারতের মোট ২০০০ রেল প্রকল্পের উদ্বোধন বা ভিত্তিপ্রস্তর স্থাপন করবেন। যা মোট ৪১ হাজার কোটি টাকার প্রকল্প। এই সব প্রকল্পের মধ্যে অন্যতম হলো সিকিমে রেলের প্রবেশ।


রেল কর্মকর্তা অমরজিত আগরওয়াল বলেন, ‘পর্যটন ও দেশের সুরক্ষার দিক থেকে রংপো স্টেশনের আলাদা গুরুত্ব আছে। এতদিন পর্যন্ত সিকিমে রেলের প্রবেশ ঘটেনি। এবার ঘটতে চলেছে। তিনটি পর্যায়ে কাজ হচ্ছে। প্রথম পর্যায় হলো, শিলিগুড়ি থেকে রংপো। দ্বিতীয় পর্যায়ে রংপো থেকে গ্যাংটক। তৃতীয় পর্যায় হলো গ্যাংটক থেকে নাথু লা।’

এ বিষয়ে প্রজেক্ট ডিরেক্টর মোহিন্দর সিং জানিয়েছেন, ‘সেবক থেকে রংপো’র দূরত্ব হলো ৪৫ কিলোমিটার। এই প্রকল্পটি ২০২৪ সালের মধ্যে শেষ করার পরিকল্পনা ছিলো, কিন্তু বন্যা, ধসের ফলে এখন ঠিক হয়েছে ২০২৫ সালে তা শেষ হবে। এই ৪৫ কিলোমিটারের মধ্যে সাড়ে ৪১ কিলোমিটার পশ্চিমবঙ্গে এবং সাড়ে তিন কিলোমিটার সিকিমে।’


মোহিন্দর বলেন, ‘এই ৪৫ কিলোমিটার যাত্রাপথে ১৫টি টানেল রয়েছে, ১৩টি বড় ব্রিজ, নয়টি ছোট ব্রিজ আছে। আগামী মাস থেকে লাইন পাতার কাজ শুরু হবে।’

তিনি আরো জানিয়েছেন, ‘টানেলের কাজটা ছিল সবচেয়ে চ্যালেঞ্জিং। এখানে পাথর খুব শক্ত নয়। এক মাসে আমরা ১৫ মিটার টানেল তৈরি করতে পেরেছি। এর মধ্যে তিস্তাবাজার আন্ডারগ্রাউন্ড স্টেশন হবে। এই প্ল্যাটফর্ম লম্বায় ৬২০ মিটার হবে। সেখানে পূর্ণ দৈর্ঘ্যের ট্রেন দাঁড়াতে পারবে। তাছাড়া ছয়টি অ্যামার্জেন্সি টানেলও থাকবে। ভারতীয় রেলের ব্রডগেজ লাইনে এটাই হবে প্রথম আন্ডারগ্রাউন্ড বা মাটির তলার স্টেশন।’

কেন্দ্রীয় সরকার এখন চীন সীমান্ত পর্যন্ত রাস্তা ও রেললাইন তৈরি করছে। নাথু লা পর্যন্ত রেলপথের সম্প্রসারণ সেদিক থেকে যথেষ্ট উল্লেখযোগ্য পদক্ষেপ। এর ফলে পর্যটকদের যেমন সুবিধা হবে, তেমনই সেনাও দ্রুত নাথু লা-তে পৌঁছে যাবে।


বিষয়:


আপনার মূল্যবান মতামত দিন:


Developed with by
Top