সিডনী শুক্রবার, ২৭শে নভেম্বর ২০২০, ১২ই অগ্রহায়ণ ১৪২৭


বিশ্বকাপ ও এশিয়ান কাপের বাছাই খেলতে কাতার গেলেন জামালরা


প্রকাশিত:
১৯ নভেম্বর ২০২০ ১৭:১০

আপডেট:
২৭ নভেম্বর ২০২০ ০০:৫২

 

প্রভাত ফেরী: নেপালের বিপক্ষে দুই প্রীতি ম্যাচ শেষে এখন কাতারের পথে বাংলাদেশ। আজ (বৃহস্পতিবার) সকালে ঢাকা ছেড়েছেন জামাল ভূঁইয়ারা। তবে ডিফেন্ডার মনজুরুর রহমান মানিক ও স্ট্রাইকার নাবীব নেওয়াজ জীবন শেষ মুহূর্তে ছিটকে গেছেন। প্রথমজন করোনায় আক্রান্ত, আর পরেরজন চোটের কারণে দলের সঙ্গে যেতে পারেননি। এতে অবশ্য অন্যরা হতোদ্যম হয়ে পড়েননি। ভালো কিছুর আশায় দোহার উদ্দেশে যাত্রা করেছেন জামালরা।

প্রধান কোচ জেমি ডে করোনায় আক্রান্ত। তার জায়গায় সহকারী স্টুয়ার্ট ওয়াটকিস দায়িত্বে। ৫৪ বছর বয়সী ইংলিশ কোচ যাওয়ার আগে আবারও বলেছেন, কঠিন ম্যাচ হতে যাচ্ছে। সেখানে দুই সপ্তাহ অনুশীলন হবে। দুটি ম্যাচ প্রস্তুতি হবে। এই সময়ের মধ্যে দলকে প্রস্তুত করতে হবে। আমরা সামনের দিকে দৃষ্টি দিয়েছি। জেমিকে মিস করছি। সে আমাদের দলনেতা। আশা করছি, শিগগিরিই সে সুস্থ হয়ে আমাদের সঙ্গে যোগ দেবে।

অধিনায়ক জামাল বিশ্বকাপ ও এশিয়ান কাপের বাছাইয়ে আগে থেকেই সমীহ করছেন কাতারকে। সেজন্য প্রস্তুতি আরও ভালোভাবে নিতে চান তিনি। আরও কঠোর পরিশ্রমের তাগিদ এই মিডফিল্ডারের, নেপাল আর কাতার ম্যাচ এক নয়। কাতার তো এশিয়ান চ্যাম্পিয়ন। এখন কাতার ম্যাচ নিয়ে ভাবছি। শক্তিশালী প্রতিপক্ষ। আরও কঠোর পরিশ্রম করতে হবে, অনুশীলন করতে হবে। তা না হলে আমরা পারবো না।

দুই বছর আগে এশিয়ান গেমস ফুটবলে জামালের গোলে কাতারকে হারিয়েছিল বাংলাদেশ। এছাড়া বিশ্বকাপ বাছাইয়ে ঢাকার ম্যাচে ভালো খেলেও ২-০ তে হারতে হয়েছিল। সেই দুটি ম্যাচ থেকে অনুপ্রেরণা নিচ্ছেন জামাল, বড় দলের বিপক্ষে খেললে অনুপ্রেরণা পাওয়া যায়। অনেক মানুষ দেখে এইসব ম্যাচ। এটা অনুপ্রেরণা অবশ্যই। আশা করছি, নিজেদের সেরাটা দিতে পারবো।

দলের অভিজ্ঞ গোলকিপার আশরাফুল ইসলাম রানা বলেছেন, বড় ধরনের চ্যালেঞ্জ নিয়ে যাচ্ছি। যেন ভালো ম্যাচ খেলতে পারি। প্রতিশ্রুতি অনুযায়ী, লক্ষ্য পূরণের অপেক্ষায় আছি। স্ট্রাইকার সুমন রেজা এই প্রথম দেশের বাইরে লাল-সবুজ জার্সি গায়ে জড়ানোর অপেক্ষায়। নেপালের বিপক্ষে তার ঢাকায় অভিষেকে হয়েছে। এখন দেশের বাইরে খেলার অপেক্ষায় উত্তর বারিধারার এই ফুটবলার, যে ভুলগুলো আগে হয়েছে, তা সামনের দিকে করতে চাই না। সুযোগ পেলে গোল করে দেশের জয়ে ভূমিকা রাখতে চাই। প্রথম দেশের বাইরে ম্যাচ খেলতে যাচ্ছি। এখন আর জড়তা নেই। সবার সহযোগিতা নিয়ে লড়াই করবো।

আপাতত কাতারে গিয়ে তিন দিনের কোয়ারেন্টিনে থাকতে হবে বাংলাদেশ দলকে। দলের ম্যানেজার আমের খান সেটি নিশ্চিত করে জানিয়েছেন, ২৭ জনের স্কোয়াড ছিল। মানিক করোনায় আক্রান্ত। জীবনের চোট। ওরা উন্নতি করতে পারলে তখন পরবর্তীতে দলের সঙ্গে যোগ দিতে পারবে। এছাড়া প্রস্তুতি ম্যাচে প্রতিপক্ষ চূড়ান্ত হয়নি। ওখানে গিয়ে বলতে পারবো।


বিষয়:


আপনার মূল্যবান মতামত দিন:


Top