সিডনী শুক্রবার, ১৯শে জুলাই ২০২৪, ৪ঠা শ্রাবণ ১৪৩১


ইউরো থেকে বিদায় নিলেও জার্মানিকে নিয়ে আশাবাদী ক্রুস


প্রকাশিত:
৬ জুলাই ২০২৪ ১৬:৩০

আপডেট:
১৯ জুলাই ২০২৪ ২২:০৭

 

স্পেনের বিরুদ্ধে সমান তালে লড়াই করে শেষ পর্যন্ত অতিরিক্ত সময়ের শেষ মুহূর্তের গোলে ২-১ ব্যবধানে পরাজিত হয়ে ইউরো চ্যাম্পিয়নশীপের কোয়ার্টার ফাইনাল থেকে বিদায় নিতে হয়েছে ¯ জার্মানিকে। স্বাগতিকদের এই বিদায় সত্ত্বেও অবসরে যাওয়া তারকা মিডফিল্ডার টনি ক্রুস জার্মানির ভবিষ্যৎ নিয়ে আশাবাদী।
ইউরো চ্যাম্পিয়নশিপ শুরুর আগেই আসর শেষে সব ধরনের ফুটবল থেকে বিদায়ের ঘোষনা দিয়েছিলেন ক্রুস। বড় কোন আসরে প্রায় এক দশকেরও বেশি সময় ধরে নিজেদের মেলে ধরতে না পারা জার্মানির ইউরোর সার্বিক পারফরমেন্স নিয়ে বিদায় বেলায় সন্তুষ্টি জানিয়েছেন রিয়াল মাদ্রিদ তারকা। প্রথমার্ধ গোলশুন্য ড্র থাকার পর দ্বিতীয়ার্ধের শুরুতেই ১৬ বছর বয়সী লামিন ইয়ামালের পাসে ডানি ওলমো গোল করে স্পেনকে এগিয়ে দেন। ৮৯ মিনিটে ফ্লোরিয়ান রিটজের গোলে দারুনভাবে ম্যাচে ফিরে আসে জার্মানি। ১১৯৯ মিনিটে মিকেল মেরিনোর হেডে স্পেনের জয় নিশ্চিত হয়।
কোয়ার্টার ফাইনালের জমাট লড়াই শেষে ক্রুস বলেছেন, ‘আমাদের পক্ষে যা কিছু করা সম্ভব সেটাই আমরা আজ করেছি। যদিও একেবারে শেষ মুহূর্তে এসে এই ধরনের পরাজয় কোনভাবেই মেনে নেয়া যায়না। অবসরের থেকে ইউরো থেকে বিদায় নেয়াটা এখন মূল গুরুত্ব দিচ্ছি। কারন এই ম্যাচে আমরা যেসব গোল করতে পারিনি সেগুলো নিয়ে ভাবতে হবে। গোলের সুযোগ নষ্ট হওয়ায় আমাদের স্বপ্ন শেষ হয়ে গেছে। পুরো টুর্নামেন্টে আমরা দারুন ফুটবল খেলেছি। কিন্তু তারপরও এভাবে বিদায় সত্যিই হতাশার।’
৩৪ বছর বয়সী ক্রুস বলেছেন জার্মান ফুটবলের ভবিষ্যত অনেক উজ্জ্বল। এই দলটি সমর্থকদের মধ্যেও আশার সঞ্চার করেছে। এ সম্পর্কে ক্রুস বলেন, ‘আমরা যা করে দেখিয়েছি তাতে সবারই গর্ব হবার কথা। আমি নিজেও দারুন খুশী। আমি মনে করি আমরা আবারো জার্মান ফুটবলকে আশাবাদী করে তুলেছি। একসাথে এগিয়ে যেতে পারলেও ভবিষ্যতে অবশ্যই ভাল কিছু অর্জন করা সম্ভব। কিন্তু সত্যি বলতে কি এই আসরে আমাদের আরও কিছুটা সময় থাকা উচিত ছিল।’
ইউরোর আগেই অবশ্য আন্তর্জাতিক ফুটবলকে বিদায় জানিয়েছিলেন ক্রুস। কিন্তু ঘরের মাঠে ইউরোতে অবসর ভেঙ্গে খেলার জন্য ক্রুসকে রাজি করান জার্মান কোচ জুলিয়ান নাগলসম্যান। অভিজ্ঞ এই তারকা বিদায়ের পর ৩৬ বছর বয়সী নাগলসম্যান বলেছেন, ‘টনির ক্যারিয়ার নিয়ে কিছু বলাটা সত্যিই অসম্ভব। সে জার্মানির একজন অসাধারণ খেলোয়াড়, জার্মানির অন্যতম বড় খেলোয়াড়। সবাই তার সাফল্য সম্পর্কে জানে। কিন্তু তার চরিত্র সম্পর্কে অনেকেই জানেনা। অনেক কঠিন মুহূর্তে তিনি যেভাবে দলকে একতাবদ্ধ করে রেখেছিলেন তা অনুকরণীয়।’

নাগালসম্যান জানিয়েছেন পরাজয়ের পর ড্রেসিংরুমে খেলোয়াড়দের উদ্দেশ্যে ক্রুস বলেছেন তিনি সব সময়ই এই দলটির একটি অংশ হয়ে থাকবেন।


বিষয়:


আপনার মূল্যবান মতামত দিন:


Developed with by
Top