সিডনী রবিবার, ৯ই আগস্ট ২০২০, ২৫শে শ্রাবণ ১৪২৭

ক্যারিয়ার গড়ুন আন্তর্জাতিক কর্মক্ষেত্র এভিয়েশন ম্যানেজমেন্টে


প্রকাশিত:
৩ জুলাই ২০২০ ১৬:৪২

আপডেট:
৯ আগস্ট ২০২০ ০২:৪২

ফাইল ছবি

 

প্রভাত ফেরী: পৃথিবীতে প্রতি বছর বিমান পরিবহনে ২৩ হাজার পাইলট ও বিমান রক্ষণাবেক্ষণে ৩০ হাজার জনবল দরকার হচ্ছে। আগামী ২০ বছরে এভিয়েশন সেক্টরে ১৭ হাজার নতুন দ্রুতগামী বাণিজ্যিক বিমানসহ ২৫ হাজার নতুন এয়ারক্রাফট, ৪ লাখ ৮০ হাজার টেকনিশিয়ান এবং ৩ লাখ ৫০ হাজার পাইলটের প্রয়োজন হবে। এগুলো সুষ্ঠুভাবে পরিচালনায় দরকার হবে দক্ষ এভিয়েশন ম্যানেজমেন্ট কর্মীর। এভিয়েশন ম্যানেজমেন্ট আন্তর্জাতিক কর্মক্ষেত্র।

দেশের বেকার সমস্যার সমাধানে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা রাখতে  পারে এভিয়েশন। এসএসসি’র পর এভিয়েশন সংশ্লিষ্ট বেশকিছু ডিপ্লোমা কোর্স রয়েছে। এ ছাড়া আছে ফিবার আওতাভুক্ত এভিয়েশন ম্যানেজমেন্টের উপর এমবিএ, বিবিএ, এডেক্সেল-এর আওতাভুক্ত অ্যারোস্পেস ইঞ্জিনিয়ারিংয়ে এনডি/এইচএনডি, বিজনেস অ্যাকাউন্টিং, এভিয়েশন অপারেশন এবং কারিগরি বোর্ডের আওতায় শর্ট কোর্স কেবিন ক্রু, এয়ার হোস্টেজ, ট্রাভেল, ট্যুরিজম অ্যান্ড টিকেটিং প্রভৃতি। ৮৯৯১৩৭১, ০১৯২৬৯৬৩৬৫৩-৫ নম্বরে ফোন করে এসব কোর্স সম্পর্কে বিস্তারিত আরও তথ্য জেনে নিতে পারবেন।

এছাড়া দুনিয়াজুড়ে ৫ হাজার ৫১০টিরও বেশি এয়ারলাইন্স কোম্পানিতে রয়েছে এভিয়েশন ম্যানেজমেন্টে দক্ষ কর্মীদের জন্য কাজ করার লোভনীয় সব অফার। এশিয়া মহাদেশের মালয়েশিয়া, থাই এয়ার ও সিঙ্গাপুর এয়ারলাইন্স এবং মধ্যপ্রাচ্যের সৌদি আরব, কুয়েত, কাতার, ইতিহাদ, এমিরেটস, গালফ এয়ার, ইউরোপ ও আমেরিকার বিভিন্ন এয়ারলাইন্সে এভিয়েশন ম্যানেজমেন্টের কর্মীদের এত বেশি চাহিদা, অন জব ট্রেইনিং করার সময়েই অনেকে ভালো চাকরির অফার পেয়ে থাকেন। এছাড়া বিশ্বে সিভিল এভিয়েশন রয়েছে ১৮৯টি, ম্যানুফেকচারিং কোম্পানি রয়েছে ২৩২, বিমান মেন্টেইনেন্স রিপিয়ার অর্গানাইজেশন (এমআরও) রয়েছে ৮৬০টি।

এভিয়েশন সেক্টরে চাকরি পেতে শিক্ষাগত যোগ্যতার সাথে কিছু বাড়তি যোগ্যতা থাকতে হয়। যেমন, বডি ল্যাংগুয়েজ, বাচনভঙ্গী, ধৈর্য ক্ষমতা, বুদ্বিমত্তা প্রভৃতি। বাংলাদেশে শিক্ষা প্রদানকারী অন্যতম এভিয়েশন কলেজ ক্যাটেক। এখান থেকে ডিপ্লোমা ইঞ্জিনিয়ারিং শেষ করার পর বিএসসি ইন অ্যারোনটিক্যাল ইঞ্জিনিয়ারিং করা যায়।

এ ছাড়া কারিগরি শিক্ষা বোর্ডের অধীনে পাওয়ার, মেকানিক্যাল ইত্যাদি পড়েও ইচ্ছা করলে এই বিষয়ে পড়া যায়। শুধু তাই নয়, এখান থেকে স্বল্পমেয়াদি ডিপ্লোমা শেষ করে বিদেশে গিয়ে শিক্ষার্থীরা চাইলেই ইংল্যান্ডের কভেন্টি, কিংসস্টোন, স্যালফোর্ড, ক্রেইনফিল্ড প্রভৃতি বিশ্ববিদ্যালয়সহ বিশ্বের যেকোনো দেশের এডেক্সেল অনুমোদিত অনেক স্বনামধন্য ইউনিভার্সিটিতে সহজে চূড়ান্ত বর্ষে ভর্তি হয়ে বিইজি ইন অ্যারোস্পেসের সার্টিফিকেট অর্জন করতে পারে।

একটি এয়ারলাইন্সের কাস্টমার সার্ভিস, কার্গো হ্যান্ডলিং, এয়ারলাইন্স অপারেশন, বিমান বা রানারের উচ্চ পর্যায়ের নিরাপত্তা নিশ্চিত করা, বিমানবন্দর ও এয়ারলাইন্সের প্রশাসনিক কর্মকাণ্ড পরিচালনা সাধারণত এভিয়েশন ম্যানেজমেন্ট কিংবা এভিয়েশন অপারেশনের জনবল দ্বারা পরিচালিত হয়ে থাকে। তাই আপনিও এভিয়েশন ম্যানেজমেন্টে পড়াশোনা করে হতে পারেন এ সেক্টরের একজন গর্বিত কর্মী। এভিয়েশন ম্যানেজমেন্ট হচ্ছে এয়ারলাইন্সের ম্যানেজমেন্ট বা ব্যবস্থাপনা নিয়ে স্পেশালাইজড কোর্স, যেখানে এয়ারলাইন্সের ব্যবস্থাপনার বিভিন্ন দিক যেমন : এয়ারলাইন্স কার্গো ম্যানেজমেন্ট, মার্কেটিং ও সেলস, এয়ারপোর্ট অপারেশন, বোর্ডিং কন্ট্রোল, ট্রাফিক ব্যবস্থাপনা, কাস্টমার রিলেশন, এয়ারক্রাফট লিজিং, এয়ারলাইন্স ফাইন্যান্স, এয়ারলাইন্স পলিসি ও আইন-কানুন শেখানো হয়।

অন্যদিকে বিটেক থেকে স্বল্পমেয়াদি ডিপ্লোমা ইঞ্জিনিয়ারিং শেষ করে বিশ্বের ১৭৩টি দেশে ক্রেডিট ট্রান্সফার করে পড়ালেখা করা যায়। ক্যাটেকে ডিপ্লোমা ইঞ্জিনিয়ারিং ইন এয়ারক্রাফট মেইনটেন্যান্স, হায়ার ডিপ্লোমা ইঞ্জিনিয়ারিং ইন এয়ারক্রাফট ম্যানটেইনেন্স ইঞ্জিনিয়ারিং, বিএসসি ইন অ্যারোনটিক্যাল ইঞ্জিনিয়ারিং, বিবিএ, এমবিএ ইন এভিয়েশন ম্যানেজমেন্ট, ট্রাভেল ট্যুরিজ্যম টিকেটিং। এয়ারহোস্টেস কেবিন ক্রু প্রভৃতির সীট সংখ্যা ত্রিশ জন। ক্যাটেক বাংলাদেশ কারিগরী শিক্ষা বোর্ডের প্রথম অনুমোদিত এভিয়েশন কলেজ। যোগাযোগ :সেক্টর-১১, রোড-২, বাড়ী-১৪, উত্তরা, ঢাকা।

যেখানে পড়বেন: ইউনাইটেড কলেজ অব এভিয়েশন সায়েন্স অ্যান্ড ম্যানেজমেন্টের নির্বাহী পরিচালক ও অধ্যক্ষ মোহাম্মদ আলী জানান, এভিয়েশন ম্যানেজমেন্টে ক্যারিয়ার গড়তে হলে অনুমোদিত ও মানসম্মত শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে পড়ালেখা ও প্রশিক্ষণ নিতে হবে। ইউনাইটেড কলেজ এভিয়েশন ম্যানেজমেন্ট, এয়ার হোস্টেজ, অ্যারোনটিক্যাল ইঞ্জিনিয়ারিং বিষয়ে ডিগ্রি অর্জনে দেশের শিক্ষার্থীদের সেই সুযোগ করে দিচ্ছে। ইতিমধ্যে এই প্রতিষ্ঠান থেকে ডিগ্রি অর্জন করে অনেকেই কাজ করছে এভিয়েশন সেক্টরে। জানা গেছে, এভিয়েশন সেক্টরে দক্ষ জনশক্তি গড়ে তোলা এবং বাংলাদেশী এভিয়েশন গ্রাজুয়েটদের আন্তর্জাতিক এভিয়েশন মানসম্পন্ন করা ও বিদেশী শিক্ষার্থীদের আকর্ষণের জন্য ঢাকার আশকোনায় বিশ্বমানের এভিয়েশন বিশ্ববিদ্যালয় করার উদ্যোগে নিয়েছে সরকার। এজন্য সিভিল এভিয়েশনের ১২ একর জমি নির্বাচন করা হয়েছে। এতে লন্ডনের মিডল সেক্স ইউনিভার্সিটি, বার্নেল ইউনিভার্সিটি ও সিটি ইউনিভার্সিটির সঙ্গে এডুকেশন এক্সচেঞ্জ প্রোগ্রাম থাকবে। বর্তমানে এভিয়েশন ম্যানেজমেন্ট কোর্স করানো হয় বেশ কয়েকটি প্রতিষ্ঠানে। যেমন- ইউনাইটেড কলেজ অব এভিয়েশন সায়েন্স অ্যান্ড ম্যানেজমেন্ট। ঠিকানা- সেক্টর-০৩, রোড-০৪, বাড়ী-১৬, উত্তরা, ঢাকা ফোন : ৭৯১১৮৩১, ০১৯৭০৬০৮০৭১, ০১৭৫৬৭৬৬৫৬০ ওয়েব: www.uca.edu.bd। ক্যামব্রিয়ান ইন্টারন্যাশনাল কলেজ অব এভিয়েশন। এছাড়াও অনেক প্রতিষ্ঠানেই এ-সংক্রান্ত কোর্স করানো হয়।


বিষয়:


আপনার মূল্যবান মতামত দিন:


Top