সিডনী রবিবার, ৩রা মার্চ ২০২৪, ২০শে ফাল্গুন ১৪৩০


রাজনীতি ছেড়ে বেসরকারি চাকরি ধরছেন অস্ট্রেলিয়ার সাবেক প্রধানমন্ত্রী মরিসন


প্রকাশিত:
৬ ফেব্রুয়ারি ২০২৪ ১৫:৪৭

আপডেট:
৩ মার্চ ২০২৪ ১৫:৫৮

 

মরিসন বলেছেন, আমার ব্যক্তিগত জীবনে ফিরে আসার সময় এসেছে। প্রতিরক্ষা সম্পর্কিত একাধিক উপদেষ্টার ভূমিকা পালন করব। এখন এগিয়ে যাওয়ার সময়।


রাজনীতি ছেড়ে দিচ্ছেন অস্ট্রেলিয়ার সাবেক প্রধানমন্ত্রী স্কট মরিসন, বেসরকারি চাকরিতে যোগ দিচ্ছেন তিনি।

গত দশকের দীর্ঘতম সময়ে অস্ট্রেলিয়ার প্রধানমন্ত্রীর দায়িত্বে থাকা লিবারেল পার্টির নেতা মরিসন এক ঘোষণায় মঙ্গলবার এ কথা জানিয়েছেন বলে বিবিসির প্রতিবেদনে বলা হয়েছে।

মরিসন বলেছেন, আমার ব্যক্তিগত জীবনে ফিরে আসার সময় এসেছে। প্রতিরক্ষা সম্পর্কিত একাধিক উপদেষ্টার ভূমিকা পালন করব। এখন এগিয়ে যাওয়ার সময়।

২০২২ সালে লেবার পার্টির অ্যান্টনি আলবানিজের কাছে নির্বাচনি পরাজয়ের পর মরিসনের অবসর অবশ্য প্রত্যাশিতই ছিল। ২০০৭ সালে প্রথমবারের মতো নির্বাচিত হয়েছিলেন তিনি। ২০১৮ থেকে ২০২২ সাল পর্যন্ত ছিলেন রাষ্ট্রের দায়িত্বে।

করোনাভাইরাসের সংক্রমণের শুরুতে চীনের সঙ্গে বৈরী সম্পর্ক, সাবমেরিনের চুক্তিতে ফ্রান্সের সঙ্গে দ্বন্দ্বসহ অনেক কিছু নিয়েই বেশ আলোচিত ছিলেন ৫৫ বছর বয়সী মরিসন।

২০১৩ সালে অভিবাসন মন্ত্রী হিসেবে মন্ত্রিসভায় যোগ দিয়ে আলোচনায় আসেন মরিসন। এরপর তিনি লিবারেল পার্টির নেতা এবং প্রধানমন্ত্রী হিসেবে ম্যালকম টার্নবুলের স্থলাভিষিক্ত হওয়ার আগে সমাজসেবা মন্ত্রী এবং কোষাধ্যক্ষ হিসেবে দায়িত্ব পালন করেন।

মরিসনই ২০০৭ সালে জন হাওয়ার্ডের পর পূর্ণ মেয়াদে দায়িত্ব পালনকারী অস্ট্রেলিয়ার প্রথম প্রধানমন্ত্রী।


বিষয়:


আপনার মূল্যবান মতামত দিন:


Developed with by
Top