সিডনী বুধবার, ১২ই আগস্ট ২০২০, ২৮শে শ্রাবণ ১৪২৭


বসতভিটে : দিলারা মেসবাহ 


প্রকাশিত:
৩১ জুলাই ২০২০ ১৬:১৩

আপডেট:
৩১ জুলাই ২০২০ ১৬:২১

 

লোকমুখে শুনি আমাদের অবসন্ন ভিটে ক্ষয়রোগে শয্যাশায়ী প্রায়! 
আহা স্মৃতিভুক আমাদের দরদালান। অফুরন্ত স্মৃতিরসে নোনা ধরে গেছে সমূহ অন্তরে?
জানি মায়ের ধূপের সুবাসমাখা জলচৌকি অমর! লতিয়ে ওঠা মধুমঞ্জ্ররী সেও অমর।
আমাদের সারাবেলা খুঁনসুটি--- ইলিশের সর্ষে বাটা স্বাদ।

চতুরঙ্গ চচ্চড়ি, ঝিঙে পটোলের গলাগলি লাবড়া।
মুরগির রান বিষয়ক অভিমান।
ভাইয়ের কফিন ধরে হু হু করা
শোক! আমাদের দাঁতব্যথা
জ্বরজারি ফেনা ভাত! মাগুরের নীলাভ ঝোল।

মায়ের কল্কাপাড় আঁচল দীর্ঘতর বলে অযুত অশ্রু অপত্য স্নেহ,
কিছু বঞ্চনা এঁটে যেতো চমৎকার।
বাবার বাইফোকালের তলে জোনাকির আলো। অক্ষরের ফুলে গাঁথা হতো মসলিন।
নেয়ামতখানায় পাটালিগুড়ের জামবাটি।
স্মৃতিঘ্রাণে জাবর কাটি অনুরূপ।
বসতভিটে আদি, অনন্ত।হয় না বিলুপ্ত। ভুল তথ্য প্রচারে বিরত থাকুন সাধুজন।

ক্ষয়কাশ সামলে সরু চোখে চেয়ে আছে বসতভিটে।
বৈঠকঘর বুক পেতে ডাকে-- মাটির চুলার ছাই উড়তে থাকে অনাদিকাল।
দূর দূরান্ত থেকে আমরা করি সোরগোল
বসতভিটে গো ভালোবাসা নাও।

 

দিলারা মেসবাহ
কবি ও কথাশিল্পী, বাংলাদেশ লেখিকা সংঘের সভাপতি

 

এই লেখকের অন্যান্য লেখা



আপনার মূল্যবান মতামত দিন:


Top