সিডনী বুধবার, ২১শে অক্টোবর ২০২০, ৬ই কার্তিক ১৪২৭


বাল্মীকি (হিন্দি কবিতা) : হূবনাথ পান্ডে


প্রকাশিত:
১৭ অক্টোবর ২০২০ ১৫:২১

আপডেট:
২১ অক্টোবর ২০২০ ০৭:২৩

ছবিঃ হূবনাথ পান্ডে


কী জাত তোমার
বাল্মীকি ?
জনতা জানতে চায়।

জাত ছাড়া এই দেশে
মূল্যায়ন করা হয় না
ঈশ্বরকেও,
আর এ জন্যেই
সব ঈশ্বরও
বেছে বেছে উঁচু জাতে জন্মেছে।
অছ্যুত হয়ে জন্মাবার হিম্মত
ঈশ্বরও দেখাতে পারেনি,
এমনকি
মেয়ে হয়ে জন্মানোরও
প্রবল অনীহা ঈশ্বরের।

তোমার রামায়ণে
বেশ ভালোই করেছো --
সবারই জাত ঠিক করা আছে !
রাক্ষসকে বানিয়েছো ব্রাম্ভণ,
তাতে রাক্ষসের কিছু যায় আসেনি,
ব্রাম্ভণেরও কিছু ক্ষতি হয়নি তেমন।

রাবণ, সে তো জাতে ছোট !
যে-দেশে ছোটজাত হলে
নিঃশ্বাস নেওয়াও দুষ্কর,
সেখানে প্রতি বছর দশেরায়
কুশপুতুল কম,
সশরীরে তাদেরই জ্বালানো হয় বেশি।

হাজার বছর ধরে
তুমি চেনা আমাদের শিরা-উপশিরায়।
তুমি আদি কবি
তুমি স্রষ্টা,
প্রতিষ্ঠিত ছিল তোমার সত্য --
কবির কোনো জাত হয় না।
সাধারণ লোকের সংকীর্ণতার ঊর্ধ্বে
কবি হন অন্যকিছু, অন্যরকম।
তবুও তোমার জাত জানতে চেয়ে
পাপ করছি আমি ;
কেননা লোকেরা জিজ্ঞেস না করেই
নিজের নিজের সুবিধেমতো
ঠিক করে নিয়েছে তোমার জাত।
একটি অক্ষরও পড়ি আর না-ই পড়ি
সযত্নে গুছিয়ে রেখেছি
ব্যাস কালিদাস ভাসের জাত প্রমাণপত্র !
আর না পড়েও শুধু জাত আর বর্ণ দেখে
মূল্যায়ন করি তোমাদের, কবিদের।

তুমি কি জানো বাল্মীকি
অহল্যা আর ইন্দ্রের যে প্রেমকাহিনী
তুমি বর্ণনা করেছিলে,
তোমার পরবর্তী কবিরা তাকে বলেছিল পাপ ?
কারণ, অহল্যা ছিল উঁচু জাতের,
আর যতই প্রেমী হোক ইন্দ্র,
উঁচু জাতের বিবাহিতা মহিলার
অধিকারই ছিল না প্রেম নিবেদনের।

তোমার রাম ছিল মানুষ,
একজন মানুষের যে সব দোষত্রুটি থাকে
সেই সব নিয়ে একজন রক্তমাংসের মানুষ।
পরবর্তী ভক্ত কবির দল
রামকে ঈশ্বর বানিয়ে দিয়েছে --
বেজায় দুর্বল আর অসহায় এক ঈশ্বর।
এই ঈশ্বর পাপীদের হাতের খেলনা হয়ে উঠছে
আর তাই নিয়ে
খেলা শুরু করেছে ধান্দাবাজ রাজনীতি।
যে-রাজনীতির কোনো জাত হয় না,
জাত ছাড়া সেই রাজনীতি আজ অচল,
জাতই আজ পরিচয় !

জাতের প্রশ্ন আজ অস্তিত্বের প্রশ্ন বাল্মীকি,
ঘুণধরা কাঠের মত
মানুষেরও ভিতর আজ শূন্য, ফাঁপা।
জাতকে বাদ দিয়ে ওরা তাই
উঠতে পারে না, বসতে পারে না,
নিজে নিজে চলতে পারে না এক কদমও।

এই সব দেখে প্রশ্ন জাগলো মনে --
জিজ্ঞেস করেই দেখি তোমার জাত !
তোমাকে মূল্যায়ন করতে সুবিধে হবে হয়তো, তাই।

আমি জানি,
আমার এ পাপ
তুমি ক্ষমা করে দেবে।
তুমি তো পূর্বজ আমারই,
আর আমি
তোমারই নিতান্ত অযোগ্য বংশজ !


হূবনাথ পান্ডেঃ কবি হূবনাথ পান্ডের জন্ম ভারতের বেনারস শহরে ১৯৬৫ সালের ১৩ই এপ্রিল। আধুনিক হিন্দি কবিতার জগতে হূবনাথ পান্ডে চর্চিত একটি নাম। বহুচর্চিত তাঁর কবিতা। সামাজিক বৈষম্য, রাজনীতিকদের নীতিহীনতা, জাতপাতে দীর্ণ ভারতীয় সমাজ প্রভৃতি তাঁর কবিতার বিষয়। তাঁর উল্লেখযোগ্য কয়েকটি কাব্যগ্রন্থ 'কৌয়ে' 'লোয়ার প‍্যারল' 'মিট্টী' 'অকাল' প্রমুখ। বর্তমানে কবি হূবনাথ পান্ডে মুম্বাই বিশ্ববিদ্যালয়ের হিন্দি বিভাগে অধ্যাপনায় যুক্ত। অনূদিত কবিতা 'বাল্মীকি' সদ্যলেখা, এখনও কোনো গ্রন্থভুক্ত হয়নি।


মূল হিন্দি থেকে অনুবাদ:  স্বপন নাগ
পশ্চিম বঙ্গ, ভারত



আপনার মূল্যবান মতামত দিন:


Top