সিডনী বুধবার, ২৩শে সেপ্টেম্বর ২০২০, ৮ই আশ্বিন ১৪২৭

অনার্স থেকেই শুরু করুন বিসিএসের প্রস্তুতি


প্রকাশিত:
২১ আগস্ট ২০২০ ১৩:৪১

আপডেট:
২৩ সেপ্টেম্বর ২০২০ ০৬:১৭

ফাইল ছবি

 

প্রভাত ফেরী: বিশ্ববিদ্যালয়ে ভর্তি হওয়ার পরপরই অনেকে বিসিএস পরীক্ষার প্রস্তুতির পড়াশোনা শুরু করে দেন। আবার অনেকে শেষ পর্যায়ে গিয়ে শুরু করেন, তখনই দেখা যায় দিশাহারার মতো অবস্থা! অভিজ্ঞ ও বাস্তবে সফলদের পরামর্শ হলো অনার্সে পড়াশোনার সময় থেকেই প্রস্তুতি শুরু করা। 

বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রথম বর্ষ থেকে অনেকেই বিসিএসসহ অনান্য চাকরি পরীক্ষার গাইড বই পড়া শুরু করেন। একাডেমিক পড়াশোনাকে পাত্তাই দেন না। কিন্তু কয়েক দিন যেতে না যেতেই তাঁর উৎসাহে ভাটা পড়ে। অন্যদিকে  একাডেমিক ফলাফল খারাপ হতে থাকে। তারপর স্নাতক সম্পন্ন করার পর কেউ কেউ কাঙ্ক্ষিত চাকরিটা পেয়েও যান। তবে অনেকেই চাকরি না পেয়ে হতাশ হয়ে পড়েন। বিসিএস পরীক্ষায় সফল হতে একাডেমিক ভালো ফল তেমন প্রয়োজন না হলেও ভালো ফল ভাইভা বোর্ডে ইতিবাচক ইমপ্রেশন তৈরি করে। একাডেমিক ভালো ফল একজন প্রার্থীকে আত্মবিশ্বাসী করে তোলে। তা ছাড়া বেসরকারি চাকরিসহ বিষয়ভিত্তিক চাকরিতে একাডেমিক ভালো ফলের গুরুত্ব বহন করে। তাই কোনোভাবেই একাডেমিক পড়াশোনাকে বাদ দিয়ে বিসিএস বা অন্যান্য চাকরির বই পড়া উচিত হবে না। বিসিএসের গাইড বই পড়তে চাইলে চতুর্থ বর্ষ থেকে পড়া যেতে পারে।

ইংরেজিতে দক্ষতা বাড়ানো জরুরী: ইংরেজি একটি আন্তর্জাতিক ভাষা। তাই এ ভাষাটা আয়ত্ত করা সবারই দরকার। ছোটবেলা থেকে ইংরেজি পড়ে অনেকেই ইংরেজিতে দক্ষ হতে পারেন না। তাই বিশ্ববিদ্যালয়জীবনের প্রথম থেকেই ইংরেজিতে ভালো লেখার দক্ষতা, কথা বলার দক্ষতা, যেকোনো ইংরেজি লেখা দেখে পড়ে বোঝার দক্ষতা, ইংরেজিভাষী মানুষের কথা শুনে বোঝার সক্ষমতা তৈরি করতে হবে। নিয়মিত ইংরেজি দৈনিক পত্রিকা, ম্যাগাজিন পড়ার অভ্যাস করা যেতে পারে।

ইংরেজি থেকে বাংলা, বাংলা থেকে ইংরেজি  অনুবাদ অনুশীলন করা যেতে পারে। সমমনা বন্ধু, সিনিয়রদের সঙ্গে ইংরেজিতে কথা বলতে পারলে ভালো। ইংরেজি ভাষা পরিমাপের আন্তর্জাতিক মানের পরীক্ষা আইইএলটিএস, টোফেল প্রভৃতি পরীক্ষায় অংশগ্রহণ করা যেতে পারে। বিদেশে উচ্চশিক্ষা নিতে ইচ্ছা হলে এসব পরীক্ষার সার্টিফিকেট কাজে দেবে।

নিয়মিত পত্রিকা পড়া: দৈনিক পত্রিকা পড়ার অভ্যাস ব্যক্তিকে শুধু চাকরির প্রস্তুতিতে এগিয়ে রাখে না, বরং একজন মানুষকে স্মার্ট ও তথ্যসমৃদ্ধ করে। প্রত্যেক শিক্ষিত, সচেতন মানুষেরই নিয়মিত জাতীয় দৈনিক পত্রিকা পড়ার অভ্যাস করা উচিত। আর এই অভ্যাসটা আগে থেকে না থাকলে বিশ্ববিদ্যালয়জীবনের শুরু থেকে করতে পারলে ভালো।

আনন্দের সঙ্গে পত্রিকা পড়তে হবে। প্রতিদিন একটি বাংলা পত্রিকা ও একটি ইংরেজি পত্রিকা পড়তে হবে। বিশেষ করে সম্পাদকীয়, উপসম্পাদকীয় পাতা, আন্তর্জাতিক পাতা, অর্থনীতির পাতা পড়তে পারলে দারুণ কাজে দেবে। পত্রিকা পড়ার সময় অনুসন্ধিত্সু মন নিয়ে পড়তে হবে। বিভিন্ন মতের সঙ্গে নিজের মতকে মেলাতে হবে। পত্রিকা পড়ার অভ্যাস বিসিএসসহ অন্যান্য চাকরির পরীক্ষার প্রিলিমিনারি, লিখিত ও ভাইভা পরীক্ষায় কাজে দেবে।


বিষয়:


আপনার মূল্যবান মতামত দিন:


Top