সিডনী মঙ্গলবার, ২৬শে জানুয়ারী ২০২১, ১৩ই মাঘ ১৪২৭

বিবিসির শীর্ষ ১০০ নারী ২০২০ এর তালিকায় দুই বাংলাদেশি : মু: মাহবুবুর রহমান 


প্রকাশিত:
২৫ নভেম্বর ২০২০ ১৬:১৭

আপডেট:
২৫ নভেম্বর ২০২০ ১৭:০৫

 

প্রতি বছর বিশ্বের বিভিন্ন দেশ থেকে অনুপ্রেরণা সৃষ্টিকারী এবং প্রভাবশালী হিসেবে ১০০ জন নারীর একটি তালিকা প্রকাশ করে থাকে বিট্রিশ সংবাদমাধ্যম, বিবিসি। চলতি বছরও এই তালিকা প্রকাশ করা হয়েছে। ২০২০ সালে বিবিসির তৈরি করা ১০০ নারীর তালিকায় জায়গা করে নিয়েছেন দুই বাংলাদেশি। তারা হলেন সাবেক যৌনকর্মী রিনা আক্তার এবং শিক্ষক রিমা সুলতানা রিমু। 

বিবিসি জানায়, এবার ১০০ নারী নির্বাচনের ক্ষেত্রে বেশ কিছু বিষয়ে জোর দেয়া হয়েছে। যারা পরিবর্তন আনতে নেতৃত্ব দিয়েছেন এবং করোনা মহামারির এই কঠিন সময়েও তাদের কাজের মাধ্যমে নিজেদের আলাদা করতে সক্ষম হয়েছেন মূলত তাদেরকেই এই তালিকায় রাখা হয়েছে। 

তালিকার ছয় নম্বর নামটি রিনা আক্তারের। করোনা মহামারির সময় আয়হীন যৌনকর্মীদের ঘরে খাবার পৌঁছে দিয়েছেন রিনা। তিনি ও তার সহযোগীরা সপ্তাহে প্রায় ৪০০ জনের চাল, সবজি, ডিম ও মাংসসহ খাবার সরবরাহ করেছেন। একসময় যৌনকর্মী হিসেবে কাজ করা রিনা আক্তার বিবিসিকে বলেন, ‘মানুষ আমাদের অবজ্ঞা করে। কিন্তু, আমরা পেটের দায়ে এ কাজ করি। আমি চেষ্টা করছি যেন এই পেশার নারীরা অভুক্ত না থাকে এবং তাদের সন্তানদের এই পেশায় আসতে না হয়।’ 

ছবিঃ রিনা আক্তার

রিনা আক্তারকে মাত্র আট বছর বয়সে তার এক আত্মীয় একটি পতিতালয়ে বিক্রি করে দিয়েছিল। সেখানেই তিনি বেড়ে ওঠেন এবং পরে যৌনকর্মী হিসেবে দিন কাটতো তাঁর। কিন্তু এখন তিনি অন্য যৌনকর্মীদের জীবনযাত্রার মান উন্নয়নে কাজ করে যাচ্ছেন। 

তালিকার ৮৫ নম্বর নামটি ইয়ং ওমেন লিডার ফর পিসের সদস্য রিমা সুলতানা রিমুর। কক্সবাজারের বাসিন্দা রিমু তার মানবিক কর্মকাণ্ড পরিচালনা করেছেন রোহিঙ্গা শরণার্থী পরিস্থিতি মোকাবিলায়। তিনি রোহিঙ্গা নারী ও শিশুদের জন্য ন্যূনতম শিক্ষা, যেমন: স্বাক্ষরজ্ঞান, সংখ্যাজ্ঞান, নিশ্চিত করতে ক্লাস পরিচালনা করেন।  

 

ছবিঃ রিমা সুলতানা রিমু

সেই সঙ্গে তিনি রেডিও সম্প্রচার ও নাটকের মাধ্যমে বিশেষ করে নারী, শান্তি ও নিরাপত্তা বিষয়ে জাতিসংঘ নিরাপত্তা পরিষদের সিদ্ধান্তগুলো সম্পর্কে সচেতনতা তৈরিতে কাজ করেছেন। শিক্ষক রিমা সুলতানা এই করোনা মহামারির মধ্যেও তাঁর কাজ চালিয়ে গেছেন। 

রিমু বলেন, 'বাংলাদেশে জেন্ডার সমতা আনতে আমি বদ্ধ-পরিকর। আমি বিশ্বাস করি নারীরা তাদের লড়াই নিজেরাই করতে পারবে। আমাদের সাফল্য আসবেই।' 

দক্ষিণ এশিয়ার মধ্যে ভারতের চার জন, পাকিস্তানের দুই জন, আফগানিস্তানের দুই জন এবং নেপালের একজন নারী রয়েছেন এই শীর্ষ ১০০ নারীর তালিকায়। 

১০০ জনের এই তালিকায় আরো জায়গা করে নিয়েছেন ফিনল্যান্ডে নারীদের নিয়ে গঠিন জোট সরকারের প্রধান সানা মারিন, অভিনেত্রী মিশেল ইয়ো এবং করোনাভাইরাসের টিকা আবিষ্কারে অক্সফোর্ড বিশ্ববিদ্যালয়ে গবেষণায় নেতৃত্ব দেয়া সারা গিলবার্ট। 

করোনা আক্রান্ত ২০২০ সাল একটা বিশেষ বছর। এই কঠিন সময়ে বিশ্বের সব জায়গায় সমস্ত নারীই কোথাও না কোথাও কারও জন্য কাজ করছেন। নাম না জানা সে সমস্ত নারীর প্রতি সম্মান জানিয়ে এই ১০০ জনের তালিকায় প্রথম স্থানটি খালি রাখা হয়েছে। 

বিবিসি এই তালিকা তৈরির জন্য নিজস্ব টিম এবং বিবিসির বিভিন্ন ভাষার নেটওয়ার্ক টিমের সমন্বয়ে প্রথমে একটি শর্ট লিস্ট করে। যেখানে প্রাধান্য পায় বছরের আলোচিত বা গুরুত্বপূর্ণ শিরোনাম তৈরি করেছেন যারা, সেই সব নারীরা। খবরে না আসা নারীরাও বাদ যান না। তাদের গুরুত্বপূর্ণ এবং অনুপ্রেরণামূলক কাজগুলোকে তুলে ধরার চেষ্টাতেই এই তালিকা তৈরি করে বিবিসি। 

এ বছরের থিম ছিল ‘পরিবর্তনে নেতৃত্বদানকারী নারী’। সে অনুযায়ী শর্ট লিস্ট থেকে চূড়ান্ত ১০০ জনের তালিকা তৈরি করা হয়। 

 

মু: মাহবুবুর রহমান  
নিউজিল্যান্ডের মেসি ইউনিভার্সিটির পিএইচডি গবেষক 

 

এই লেখকের অন্যান্য লেখা



আপনার মূল্যবান মতামত দিন:


Top